Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১১ জুলাই ২০১৯

মহাপরিচালক

ড. মো. এছরাইল হোসেন

দেশের খ্যাতনামা কৃষি প্রকৌশলী ড. মো. এছরাইল হোসেন গত ২৭ জুন ২০১৯ মহাপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত)  হিসেবে বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট (বাগভুগই), দিনাজপুর-এ যোগদান করেন। বর্তমান পদে যোগদানের পূর্বে তিনি মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা, বিভাগীয় প্রধান ও বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএআরআই) এর বিভিন্ন আঞ্চলিক কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বিএআরআই এর ফার্ম মেশিনারি ও পোস্ট হারভেস্ট প্রসেসিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে বিশ্ব ব্যাংক এর অর্থায়নে পরিচালিত প্রকল্পে বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা হিসেবে ১৯৮৯ সালে চাকুরী জীবন শুরু করেন এবং পরবর্তীতে একই বিভাগে বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা (কৃষি প্রকৌশল) হিসেবে ১৯৯২ সাল থেকে নিয়মিত কাজ শুরু করনে। তিনি চাকুরী জীবনের উল্লেখযোগ্য সময়, ২০০০ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত তদানিন্তন গম গবেষণা কেন্দ্রে নিযুক্ত ছিলেন। চাকুরী জীবনের শুরু থেকেই তিনি ফার্ম মেকানাইজেশন, কৃষি যন্ত্রপাতির ডিজাইন, উন্নয়ন, উৎকর্ষসাধন ও কৃষক মাঠে এদের সম্প্রসারণ বিষয়ে কাজ করে আসছেন। বাংলাদেশে “বারি পাওয়ার মেইজ শেলার” ও “বারি হুইট থ্রেসার” তৈরী এবং কৃষক পর্যায়ে এদের সম্প্রসারণের তিনি একজন পথিকৃৎ।  কৃষি যন্ত্রপাতির সম্প্রসারণ বিশেষ করে কনজারভেশন এগ্রিকালচার বিষয়ক কৃষি যন্ত্রপাতির সম্প্রসারণ ও যন্ত্রপাতি প্রস্তুতকারী স্থানীয় প্রতিষ্ঠানসমূহেকে কারিগরী সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত করায় তাঁর অসামান্য অবদান রয়েছে।  

ড. মো. এছরাইল হোসেন ১৯৬২ সালে কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ থেকে ১৯৮৪ সালে বিএসসি এগ্রিল ইনঞ্জিনিয়ারিং (সম্মান) এবং ১৯৮৬ সালে ফার্ম পাওয়ার ও মেশিনারি বিষয়ে এমএসসি ডিগ্রী লাভ করেন। ২০০৭ সালে তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে “পটেটো প্লান্টার ও পটেটো হার্ভেস্টার উন্নয়ন” বিষয়ে গবেষণা করে পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন। দেশী ও বিদেশী জার্নালে তাঁর ৯০ টির অধিক গবেষণা প্রকাশনা রয়েছে। তিনি জাপানে ফার্ম মেকানাইজেশন বিষয়ে দীর্ঘমেয়াদী উচ্চতর প্রশিক্ষণ লাভ করেন। এছড়াও কনজারভেশন এগ্রিকালচার বিষয়ে সিমিট, মেক্সিকো ও অস্ট্রেলিয়াতে, উদ্ভিদ সংরক্ষণ যন্ত্রপাতি বিষয়ে চীনে ও জলবায়ু পরিবর্তন ও এর মোকাবেলা বিষয়ে ভারতে উচ্চতর প্রশিক্ষণ লাভ করেন। তিনি অস্ট্রেলিয়া, চীন, থাইল্যান্ড, ভারত, জাপান ও নেদারল্যান্ড-এ ভিজিটিং সায়েন্টিস্ট হিসেবে কাজ করেন।

তিনি ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অব কনজারভেশন এগ্রিকালচার, ফুড ফর প্রোগ্রেস, কর্ণেল বিশ্ববিদ্যালয়, যুক্তরাষ্ট্র ও পাওয়ার টিলারের বহুমুখী ব্যবহার বিশেষজ্ঞ হিসেবে এসিআইএআর, অস্ট্রেলিয়া থেকে সম্মাননা লাভ করেন। তিনি Technical Working Group of Centre for Sustainable Agricultural Mechanization (CSAM) of UN ESCAP (China) এর একজন সক্রিয় সদস্য। তিনি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ কৃষি প্রকৌশলী সোসাইটির আজীবন সদস্য। তিনি ইঞ্জিনিয়ারস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ এর একজন ফেলো ।

ড. মো. এছরাইল হোসেন এর স্বপ্ন হলো রুরাল মেকানাইজেশন এর মাধ্যমে বাংলাদেশে গম ও ভুট্টাসহ ফসলের উৎপাদন খরচ কমিয়ে কৃষকের  আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন। অদূর ভবিষ্যতে ভুট্টার বহুমূখী ব্যবহারে উৎপাদন কার্যক্রম শুরু করার জন্য বিশ্বের বিখ্যাত কর্ণ ফ্লাওয়ার ও কর্ণ ওয়েল কোম্পানীর সাথে যৌথ উদ্দ্যোগে কাজ করার জন্য তিনি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।


Share with :

Facebook Facebook